সাদা চিনিকে রাঙিয়ে কেয়ার ‘ব্রাউন সুগার’

0
39

কম দামি সাদা চিনিকে রাঙিয়ে বেশি দামি ‘ব্রাউন সুগার’র মোড়কে ভরে বাজারজাত করার ‘প্রমাণ’ মিলেছে হাটহাজারীতে।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) পৌরসভার বিভিন্ন দোকানে অভিযান চালিয়ে কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যায় উৎপাদিত ১২০ প্যাকেট ‘কেয়া কনজ্যুমার ব্রান্ডের খাঁটি দেশি আখের চিনি’ জব্দ করা হয়েছে।
এসব চিনির কেজি ৯০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছিল।

সূত্র জানায়, লাল চিনি পানিতে মেশালে কতটা রঙিন হয়! এমন সন্দেহ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হাটহাজারীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন একজন ভোক্তা। তারপর ফায়ার সার্ভিসসহ বিভিন্ন সরকারি সংস্থার রেশনের লাল চিনি সংগ্রহ করেন ইউএনও রুহুল আমিন। তারপর দুইটি স্বচ্ছ গ্লাসে পানিতে মেশান আসল ও নকল লাল চিনি। আসল চিনিতে গ্লাসের শরবতের রং খুব বেশি পরিবর্তন না হলেও নকল চিনির গ্লাসের শরবত তিন স্তরে পুরোপুরি রঙিন হয়ে যায়।

ইউএনও রুহুল আমিন বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা নিশ্চিত হয়েছি কেয়া নামের ওই ব্রাউন চিনিতে কৃত্রিম রং মেশানো হয়েছে। জব্দ করা চিনি পরীক্ষার জন্য বিএসটিআইকে চিঠি দেব আমরা।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, দোকানিরা জানিয়েছেন শহর থেকে পাইকারি দামে এসব চিনি মোড়কজাত অবস্থায় কিনে এনেছেন তারা। তাই কাউকে জরিমানা করা হয়নি। তবে আমরা সতর্ক করেছি জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কৃত্রিম রং মেশানো, ভেজাল, মেয়াদোত্তীর্ণ কোনো খাদ্যপণ্য যাতে আগামীতে বিক্রি না করেন।