বাসচাপায় দুই পিকআপের ২১ পুলিশ সদস্য আহত

0
70

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী বাসচাপায় দুই পিকআপের ২১ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার সকালে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পীরবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রাতভর টহল শেষে পুলিশবাহী দুটি পিকআপ পুলিশ লাইন্সে যাওয়ার সময় বিশ্বরোড থেকে আসা ইকনো পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ওভারটেক করতে গিয়ে পুলিশবাহী গাড়িটিকে চাপা দেয়। এ সময় গাড়িতে থাকা পুলিশ সদস্যরা আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন ইন্সপেক্টর মো. মকবুল হোসেন (৫৮), ইন্সপেক্টর বেলায়েত হোসেন (৫৬), এএসআই জহিরুল ইসলাম (২০), কনস্টেবল শাকিল আহমেদ (২১), নাসিম (২১), শওকত (২০), ওমর ফারুক (২১), রায়হান (২৫), শাহনেওয়াজ বুলবুল (২২), আলামিন (২২), রাব্বি (২২), শরিফুল (২৫), রানা (২২), বিল্লাল (৩০), সুমন (২৩), হাসিবুল (২৫), সুজন (২৩), পারভেজ (২৬), হƒদয় (২২) ও ইকরাম (২৩)। এছাড়া পুলিশ বহনকারী অন্য পিকআপের চালক বিল্লাল আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৪ জনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তাদের সাতজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য এএসআই জহিরুল ইসলাম ও চালক বিল্লালকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কনস্টেবল সৈকত, সুজন, শাহনেওয়াজ বুলবুল, রায়হান ও হৃদয়কে জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘাতক বাসটি আটক করে ও এর চালক কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার সোনাইসার গ্রামের মহরম আলীর পুত্র ইউসুফ আলীকে (৩৫) গ্রেপ্তার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আব্দুর রহিমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা হাসপাতালে আসেন। তারা আহতদের খোঁজখবর নেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোজাম্মেল হক চৌধুরী জানান, এ ঘটনায় ২১ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘাতক বাস ও বাসচালককে আটক করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক আরিফুজ্জামান হিমেল বলেন, আহত ২১ জনের মধ্যে সাতজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পঙ্গু হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। বাকিদের মধ্যে পাঁচজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ৯ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ লাইন্স থেকে পুলিশ সদস্যদের নিয়ে তিনটি পিকআপ কনভয় ডিউটিতে বের হয়। মার্কাজপাড়া এলাকায় ঢাকার দিক থেকে আসা ইকোনা পরিবহনের বাস পুলিশের পিকআপকে চাপা দিলে পুলিশ সদস্য ও একটি পিকআপের চালকসহ ২১ জন আহত হন। দুর্ঘটনায় বাস এবং পুলিশের গাড়িও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘাতক বাসটিকে আটক করাসহ এর চালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় দুই বাসিন্দা জানান, যাত্রীবাহী বাসটি অন্যায়ভাবে তার সাইডলাইন অতিক্রম করে পুলিশবাহী পিকআপ দুটিকে ধাক্কা দেয়। তাদের ধারণা বাসের চালক ঘুমিয়ে যাওয়ার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে।