ডা.শাহাদাত হোসেনের মুক্তি দাবী চট্টগ্রাম ড্যাবের

0
28

ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)’র কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কারাবন্দী ডা. শাহাদাত হোসেনের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছেন ড্যাব চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ শাখার সভাপতি অধ্যাপক ডা. জসীম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়েজুর রহমান, ড্যাব চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক ডা তমিজ উদ্দিন আহমেদ মানিক, সাধারণ সম্পাদক ডা. বেলায়েত হোসেন ঢালী এবং ড্যাব চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি অধ্যাপক ডা. আব্বাস উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক ডা. ইফতেখারুল ইসলাম লিটন।

বুধবার (২১ এপ্রিল) এক যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, চট্টগ্রামে বিএনপি পরিবারের দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত ও সুস্থ ধারার রাজনৈতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে তৃণমূল থেকে ওঠে অাসা ডাঃ শাহাদাত হোসেনকে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের ঘটনা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। ডা. শাহাদাত হোসেন বিগত চসিক নির্বাচনে মেয়র পদে অংশ নিয়ে চট্টগ্রামবাসীর কাছে জনতার মেয়র হিসাবে উপাধি পেয়েছেন। তিনি গণমাধ্যমের টক শো অালোচক হিসাবে অত্যন্ত বিনয়ী এবং একজন সজ্জন মানুষ হিসাবে পরিচিত। করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকে তিনি অসহায় হতদরিদ্র মানুষকে খাদ্যসামগ্রী ও আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছিলেন। একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসাবে তিনে খরীৰ দুখী মানুষকে বিনা পয়সায় চিকিৎসাসেবা দিয়ে গেছেন। যার কারণে তিনি চট্টগ্রামের তরুণ ও মেধাবী রাজনীতিবিদ হিসাবে অধিক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন | তার জনপ্রিয়তায় ঈর্শান্বিত হয়ে একটি মহলের ইশারায় বানোয়াট মামলা দিয়ে তাকে অন্যায়ভাবে কারাগারে বন্দি করে রাখা হয়েছে। আমরা চট্টগ্রাম ও জাতীয় রাজনীতির একজন সিনিয়র নেতার বিরুদ্ধে এধরনের মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাবন্দী করে রাখার তীব্র দিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

যে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে মামলা দায়ের করেছে তার সাথে ডা. শাহাদাতের জড়িত থাকার প্রশ্নই আসেনা। আমরা মনে করি, গ্রেফতার করে মামলা দিয়ে ভয় ভাতি প্রদর্শন করে ডাঃ শাহাদাত হোসেনকে জাতীয়তাবাদী রাজনীতির আদর্শ থেকে কোনদিনও বিচ্যুত করা যাবে না।

নেতৃবৃন্দ ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে অবিলম্বে ডা.শাহাদাত হোসেন ও গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানান।