রাউজানের নানা খবর

0
15

রাউজানে গরুর খামারীদের মধ্যে গরুর খাদ্য বিতরন
শফিউল আলম, রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ গরুর খামারীদের ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রনালয় থেকে গরুর খাদ্য বিতরন করা হয় ।

১১ মে মঙ্গলবার সকালে খামারীদের গরুর খাবার বিতরন করেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ। এসময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের অফিস সহকারী হাবিবুর রহমান । ২৯টি গরুর খামারের গরুর খাদ্য বিতরন করা হয় ।

করোনায় খাদ্য সংকট ফোন দেওয়া ৫৬ জন ব্যক্তির ঘরে খাদ্য নিয়ে উপস্থিত হলে দেখা যায় অধিকাংশ ব্যক্তি সচ্ছল ব্যক্তি তাদের কোন খাদ্য সংকট নেই
করোনার প্রার্দুভাবের কারনে রাউজানের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৫৬ জন ব্যক্তি ৩৩৩ এ ফোন করে তাদের ঘরে খাদ্য সংকট বলে আবেদন করে। ৩৩৩ এ আবেদনকারী ব্যাক্তিদের ঠিকানা ও মোবাইল ফোন নং এর সুত্র ধরে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ খাদ্য নিয়ে তাদের ঘরে উপস্থিত হয়ে যাছাই বাছাই করে ১১টি পরিবারের মধ্যে খাদ্য বিতরন করেন । রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, খাদ্য নিয়ে ৩৩৩ এ ফোন করে আবেদন কারী ব্যক্তিদের ঘরে গিয়ে যে সব পরিবারে খাদ্য সংকট রয়েছে এ সব পরিবারের মধ্যে খাদ্য প্রদান করছি । ৩৩৩ এ ফোন করে খাদ্য সহায়তার জন্য আবেদনকারীর মধ্যে অধিকাংশ সচ্ছল ও তাদের কোন খাদ্য সংকট নেই বলে পরিবার থেকে দাবী করে বলেন, সখের ভসিভুত হয়ে ৩৩৩ এ ফোন করা হয়েছে । গতকাল ১১ মে মঙ্গলবার দুপুরে রাউজান পৌরসভার পাখখাইন্যা পুকুর পাড় এলাকায় আবেদনকারী একটি পরিবারের মোবাইল নম্বরে ফোন দেয় রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ । ফোন পেয়ে এক মহিলা এসে খাদ্য নিয়ে যেতে চাই। ঐ সময়ে মহিলাকে তার ঘরের সামনে নিয়ে যেতে বললে মহিলা তার ঘরের সামনে নিয়ে যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগকে । মহিলার ঘরের সামনে উপস্থিত হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ মহিলার ঘর পাকা ঘর দেখতে পায় । মহিলার কাছে তার পরিবারের খাদ্য সংকট কিনা জানতে চাইলে মহিলা বলেন, আমার ঘরে কোন খাদ্য সংকট নেই । আমার ছেলে সখের বশিভুত হয়ে ৩৩৩ এ ফোন করেছেন । এরপর রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ঐ মহিলাকে খাদ্য দিতে চাইলে ঘরে যথেষ্ট পরিমান খাদ্য রয়েছে দাবী করে খাদ্য গ্রহন করেনি বলে জানান রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ।

রাউজানে সামাজিক যোগাযোগ বজ্রপাতে মৃত্যুর গুজব ইউ, এন ও মৃত ব্যক্তির বাড়ীতে গিয়ে সহায়তার টাকা নিয়ে ফিরে গেল
শফিউল আলম, রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ ১১ মে মঙ্গলবার সকাল ৯ টার সময়ে রাউজানের হলদিয়া ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের হলদিয়া ফজুর বাড়ীর বাসিন্দ্বা প্রবাসী বদিউল আলমের পুত্র মহিবুল ইসলাম বাপ্পি (২৮) ঘর থেকে বের হয়ে বাড়ীর অদুরে পুকুরে গোসল করার জন্য যায় । এসময়ে পুকুরে গোসল করার সময়ে মহিবুল ইসলাম বাপ্পি মারা যায় । মহিবুল ইসলাম বাপ্পি মৃগি রোগে আক্রান্ত ছিল । মৃগি রোগে মুহিবুল ইসলাম বাপ্পি মারা যায় বলে পরিবারের সদস্যরা জানান । পুকুরে গোসল করার সময়ে মহিবুল ইসলাম বাপ্পি মারা যাওয়ার পর পরিবারের সদস্যরা তাকে রাউজানের গহিরা জেকে মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কতব্যরত চিকিৎসক মহিবুল ইসলাম বাপ্পি মৃগি রোগে মারা গেছেন বলে জানান । মৃগি রোগে মৃতুবরনকারী মহিবুল ইসলাম বাপ্পি গতকাল ১১ মে মঙ্গলবার বৃষ্টি হওয়ার সময়ে পুকুরে গোসল করতে গেলে বজ্রপাতে মারা যায় বলে হলদিয়া ইউনিয়নের গর্জনিয়া এলাকার বাসিন্দ্বা সাংবাদিক বেলাল উদ্দিন অনলাইন পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযাগে মাধ্যমে প্রচার করে। সামাজিক যোগায়েগ মাধ্যমে বজ্রপাতে মারা যাওয়ার সংবাদ দেখে রাউজানের সাংসদ ফজলে করিম চৌধুরীর নির্দেশে বজ্রপাতে মারা যাওয়া মহিবুল ইসলাম বাপ্পির পরিবারকে ২০ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করার জন্য রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম দুপুরে মহিবুল ইসলাম বাপ্পির বাড়ীতে ছুটে যায় । হলদিয়া ভিলেজ রোডের উন্নয়ন কাজ করায় উত্তর সর্তা এলাকা দিয়ে হলদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের পুর্বে মহিবুল ইসলাম বাপ্পির বাড়ীতে যেতে হয় রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলালকে । মহিবুল ইসলাম বাপ্পির বাড়ীতে গিয়ে তার স্বজনদের সাথে কখা বলেন, রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ । মহিবুল ইসলামা বাপ্পির স্বজনেরা ও সাবেক মেম্বার মোঃ মুছা মহিবুল ইসলাম বাপ্পি একজন মৃগি রোগী ছিল, মৃগি রোগে মহিবুল ইসলাম বাপ্পি মারা যায় বলে জানিয়ে মহিবুল ইসলাম বাপ্পির মৃত্যুর সনদ, ও পুর্বে মৃগি রোগের চিকিৎসার কাগজ পত্র দেখান রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগকে ।